কানের ২টি দুলের জন্য বাংলাদেশে শিশু হত্যা

প্রথম সময়: ডেস্ক নিউজ | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : 28. December. 2019 | Saturday

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

প্রথম সময় সাভার প্রতিনিধি:

কোনদেশে বসবাস করছি আমরা কানের ২টি দুলের জন্য   নিখোঁজ শিশুর  হত্যার পর লাশটির হাত-পা বেঁধে বস্তায় ভরে নিজ ঘরের খাটের নিচে লুকিয়ে রাখে প্রতিবেশী দম্পত্তি। আবার শিশুটির পরিবারের সাথে খোঁজাখুজিও করে।

শুক্রবার সন্ধ্যায় সাভারের তেঁতুলঝোড়া ইউনিয়নের হেমায়েতপুরের মোল্লাপাড়া এলাকার জাহাঙ্গীর হাজীর পাঁচতলা বাড়ির একটি কক্ষ থেকে নিখোঁজ শিশুর লাশটি উদ্ধার করে পুলিশ।

এরআগে বৃহস্পতিবার দুপুরে নিখোঁজ হয় শিশুটি। পুলিশ প্রতিবেশী ভাড়াটে সোনালী ও তার স্বামী মোকসেদুর রহমানকে আটক করেছে। সোনালীর বাড়ি জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ি থানা এলাকায়।

নিহত নাজিফা খাতুন (০৮) জামালপুর জেলার সরিষাবাড়ি থানা এলাকার হাবিবুল্লাহ নিপুর কন্যা। সে জয়নাবাড়ী এলাকার গোল্ডেন বাংলা স্কুলের দ্বিতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী ছিল। আটক দম্পত্তির পাশের ফ্লাটেই থাকতো তারা।

সাভার মডেল থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) এনামুল হক বলেন, বৃহস্পতিবার থেকে নিখোঁজ ছিল শিশু নাজিফা। পরিবারের লোকজন বিভিন্ন স্থানে খোঁজাখুজি করেন। তাদের সাথে আটককৃতরাও শিশুটিকে খুজাখুজির নাটক করেছিল। শিশুটির সন্ধান চেয়ে এলাকায় মাইকিংও করা হয় ওইদিন। কিন্তু শিশুটির কোনো হদিস না পেয়ে তার মা ফাতেলা বেগম শুক্রবার সকালে সাভার মডেল থানায় একটি সাধারণ ডাইরি করেন।

তিনি আরও বলেন, সন্ধ্যায় আনুমানিক ৭টার দিকে শিশুটির প্রতিবেশী মোকছেদুল ইসলামের ফ্লাটের রুমের খাটের নিচ থেকে বস্তাবন্ধি হাত-পা বাঁধা লাশটি উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য রাজধানীর শহীদ সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়। শিশুটিকে শ্বাসরুদ্ধ করে হত্যা করা হয়েছে।

এঘটনায় ওই ফ্লাটের ভাড়াটিয়া সোনালী ও তার স্বামী মোকছেদুল ইসলাম দম্পত্তিকে আটক করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে আটক সোনালী পুলিশকে জানিয়েছে। শিশুটির কানে স্বর্ণের দুল ছিল। তাকে হত্যার করে দুল দুটি সে বিক্রি করেছে।

তবে আটকদের আরও জিজ্ঞাসাবাদ চলছে বলেও জানান তিনি।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৩৩ বার




Archives