নোয়াখালীতে ধানক্ষেত থেকে বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার

প্রথম সময়: ডেস্ক নিউজ | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : ০৬. সেপ্টেম্বর. ২০২০ | রবিবার

নোয়াখালীতে ধানক্ষেত থেকে বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

নোয়াখালী প্রতিনিধি:

নোয়াখালীতে ধানক্ষেত থেকে বৃদ্ধা মায়ের লাশ উদ্ধার
কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার রামপুর ইউনিয়নে ধানক্ষেত থেকে জোহুরা খাতুন (৭০) নামে এক বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করা হয়েছে।ধারণা করা হচ্ছে পারিবারিক কলহের জের ধরে বৃদ্ধাকে খুন করা হয়েছে।গত শনিবার(৫ সেপ্টেম্বর) সকালে উপজেলার ৬নং রামপুর ইউনিয়নের ৪ নং ওয়ার্ডে একটি ধানক্ষেত থেকে পুলিশ বৃদ্ধার লাশ উদ্ধার করেছে। এ ঘটনায় কোম্পানীগঞ্জ থানায় মামলা দায়েরের হয়েছে।স্থানীয়দের কাছ থেকে জানা য়ায়, মুছাপুর ১নং ওয়ার্ডে সাহাব উদ্দিনের ছেলে মিজানুর রহমান রবিন (২২) সকাল ৭টার সময় পার্শ্ববর্তী ইউনিয়ন রামপুরের ৪নং ওয়ার্ডের এনাম মিয়ার নতুন বাড়ির পাশের একটি জমিতে ঘাস কাটতে গেলে সেখানে মুছাপুর ১নং ওয়ার্ডের মৃত সোনা মিয়ার স্ত্রী জোহরা খাতুনের (৭০) লাশ পড়ে থাকতে দেখে। পরে সে স্থানীয় লোকজনকে ডেকে বিষয়টি জানালে তারা পুলিশকে খবর দেয়। পুলিশ এসে লাশটি উদ্ধার করে থানায় নিয়ে যায়।
স্থানীয় একটি সূত্র মতে, পারিবারিক কলহের জের ধরে এই খুনের ঘটনা ঘটতে পারে। অভিযোগ রয়েছে জোহরা খাতুনের ছেলের বৌ জোৎস্না আরার সাথে জোহরার প্রায় সময় ঝগড়া হতো। এ নিয়ে পারিবারিকভাবে অনেকবার বৈঠকও হয়েছে।নিহতের ছেলে মোঃ ইলিয়াছ জানান, শুক্রবার (৪ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় আমি বাজারে যাওয়ার সময় মাকে ঘরে দেখে গিয়েছি। রাত ১০টায় আমি ঘরে এসে আর খোঁজ করিনি। তাই বলতেও পারছিনা ঐ সময় তিনি ঘরে ছিলেন কিনা।তবে ইলিয়াছের শিশু কন্যা তানিয়া জানান, রাত সাড়ে আটটা পর্যন্ত তার দাদী ঘরে ছিল। এর পরে তারা ঘুমিয়ে পড়ায় তারা আর কিছু বলতে পারছেনা।

নিহতের মামাতো ভাই বসুরহাট বাজারের বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ সেলিম প্রথম সময়কে জানান, আমরা ধারণা করছি এর পেছনে দুটি কারণ থাকতে পারে। পারিবারিক অথবা ছিনতাই। কারণ আমার বোন প্রায় সময় বাড়ির বাইরে চলে যেত এবং সব সময় তাঁর গলায় স্বর্ণের চেইন, হাতে আংটি ও কানে দুল পরে থাকতেন। কিন্তু লাশের সাথে এসব কিছুই পাওয়া যায়নি।

তবে তিনি বলেন, ছেলের বৌ জোৎস্না আরা খুব ভালো মহিলা ছিলনা। প্রায় সময় শ্বাশুড়ীর সাথে ঝগড়া করত। আমি নিজেই কয়েকবার মিমাংসা করেছিলাম। তবে এটি একটি নিশ্চিত খুনের ঘটনা বলে তিনি দাবী করেন।

এ ব্যাপারে রামপুর ১নং ওয়ার্ডের মেম্বার মোঃ এনায়েত উল্যাহ জানান প্রথম সময়কে জানান, এটি একটি খুনের ঘটনা। তবে কে বা কারা এ ঘটনা ঘটিয়েছে তা বলা যাচ্ছে না। পুলিশি তদন্তে বেরিয়ে আসতে পারে ঘটনার মূল রহস্য। তবে পারিবারিক কলহ ছিল বলে তিনি জানান।

এ বিষয়ে কোম্পানীগঞ্জ থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোঃ আরিফুর রহমান বলেন, খবর পেয়ে আমরা তাৎক্ষনিক ঘটনাস্থলে গিয়ে সুরতহাল রিপোর্ট তৈরী করে লাশ উদ্ধার করে থানায় নিয়ে এসেছি। ময়না তদন্তের জন্য লাশটি মর্গে পাঠানো হচ্ছে। পাশাপাশি তদন্ত করে ঘটনার রহস্য উদঘাটনের চেষ্টা করা হচ্ছে।




Archives