এক আসামি দুপুরে আত্মসমর্পণ রাত ১ টায় বন্দুকযুদ্ধে নিহত।

প্রথম সময়: ডেস্ক নিউজ | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : ০৫. সেপ্টেম্বর. ২০১৯ | বৃহস্পতিবার

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

চট্টগ্রাম ব্যুরো:

চট্টগ্রাম নগরীতে থানায় আত্মসমর্পণের ১২ ঘণ্টার মধ্যে ‘বন্দুকযুদ্ধে

’ ১৩ মামলার এক আসামির মৃত্যু হয়েছে। বুধবার (৪ সেপ্টেম্বর) দিবাগত রাত ১টার দিপুকে নগরীর খুলশী থানার জালালাবাদ পাহাড়ে এই বন্দুকযুদ্ধ হয় বলে পুলিশ জানিয়েছে।

মোহাম্মদ বেলাল (৪৩) নগরীর আমবাগানে রেলওয়ে লোকোশেড কলোনির আব্দুল কাদেরের ছেলে। তাদের বাড়ি কুমিল্লা জেলার চান্দিনা উপজেলার মোহনপুর গ্রামে।

খুলশী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) প্রনব চৌধুরী প্রথম সময়কে জানান, বুধবার দুপুর ১টার দিকে বেলাল নিজেই থানায় গিয়ে আত্মসমর্পণ করে। প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে পাওয়া তথ্যের ভিত্তিতে রাত ১টার দিকে বেলালকে অস্ত্র উদ্ধারে নিয়ে যাওয়া হয় জালালাবাদ পাহাড়ে। ওসির দাবি, অস্ত্র উদ্ধারে নিয়ে যাওয়া বেলালকে ছিনিয়ে নিতে তার সহযোগী একদল সন্ত্রাসী পুলিশের ওপর হামলা করে। এসময় উভয়পক্ষে গোলাগুলি হয়। প্রায় ১৫ থেকে ২০ মিনিট গোলাগুলির পর বেলালের সহযোগীরা পিছু হটে।

পরে ঘটনাস্থল থেকে গুলিবিদ্ধ বেলালকে উদ্ধার করে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন। ঘটনাস্থল থেকে একটি এলজি ও তিন রাউন্ড কার্তুজ এবং ৪টি রামদা উদ্ধার করা হয়েছে।

ওসি প্রণব আরও জানান, বেলাল ছিল পুলিশের তালিকাভুক্ত ‘মোস্ট ওয়ান্টেড’ শীর্ষ সন্ত্রাসী। তার বিরুদ্ধে খুলশী থানায় ১১টি মামলা আছে। নগরীর অন্য থানায় আরও ২টি মামলা আছে।

বেলাল সরকারি জমি দখল, চাঁদাবাজি, খুনসহ বিভিন্ন অপরাধের সঙ্গে জড়িত ছিল।

তবে স্থানীয়রা জানিয়েছেন, বেলাল স্থানীয়ভাবে আওয়ামী লীগ সমর্থিত পাহাড়তলী ওয়ার্ডের কাউন্সিলর মোহাম্মদ হোসেন হিরণের অনুসারী হিসেবে পরিচিত

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ২৮ বার




Archives