ভি আই পি কে? সবাই মানুষ

প্রথম সময়: ডেস্ক নিউজ | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : ০৭. ফেব্রুয়ারি. ২০১৮ | বুধবার

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

সোহাগ সামী: ইউরোপের দেশ এত উন্নত একমাত্র কারন ধনি গরিব এক সমান যার ফলে  উন্নত দেশগুলিতে আইনের শাসন চলে আর বাংলাদেশে কিছু মানুষের সুবিধ ভোগকরার জন্য নতুন লেন চালু করতে যাচ্চে। মুল কারন হল সরকারের ওই ভি আইপিরা সুবিধা ভোগ করতে কারা চলবে সবাই তো মানুষ
অতিগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিদের (ভিআইপি) চলাচলের সুবিধার্থে রাজধানীর সড়কগুলোতে আলাদা লেন তৈরির প্রস্তাবের সমালোচনা করেছে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)। মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের এ প্রস্তাব অবিলম্বে প্রত্যাহার করে এ-সংক্রান্ত কোনো বিধি প্রণয়ন থেকে বিরত থাকতে সংশ্লিষ্ট সব পক্ষের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে সুজন।

বুধবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে এ আহ্বান জানানো হয়।

সংগঠনের সভাপতি এম হাফিজউদ্দিন খান ও সম্পাদক ড. বদিউল আলম মজুমদার স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বলা হয়, ভিআইপিদের চলাচলে রাজধানীতে আলাদা লেন করার প্রস্তাব অসাংবিধানিক ও বৈষম্যমূলক। এ ধরনের প্রস্তাব সংবিধানের সুস্পষ্ট লঙ্ঘন, বৈষম্যমূলক ও ক্ষমতার চূড়ান্ত অপব্যবহারের শামিল। এ প্রস্তাব সংবিধানে বর্ণিত-সুযোগের সমতা, আইনের দৃষ্টিতে কোনো নাগরিকের প্রতি রাষ্ট্রের বৈষম্য প্রদর্শন না করার মহান নীতিগুলোর লঙ্ঘন। বস্তুত একটি গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রে কোনো নাগরিকের ভিআইপি হওয়ার সুযোগ নেই।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ বলেন, আলাদা লেন করে ভিআইপি ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীসহ কোনো বিশেষ মহলকে অসাংবিধানিক ও অনৈতিক সুবিধা প্রদানের উদ্যোগ গণতান্ত্রিক চর্চার সঙ্গে সামঞ্জস্যপূর্ণ নয়।

তারা বলেন, যে কোনো প্রকার অন্যায্য ও আইনবহির্ভূত আচরণের কারণে অসাংবিধানিক ও বৈষম্যমূলক নিয়ম চালু করা গ্রহণযোগ্য হবে না। এ ধরনের প্রস্তাব ক্ষমতাশালীদের অনৈতিক আচরণে উৎসাহিত করার পাশাপাশি ট্রাফিক ব্যবস্থাপনায় চ্যালেঞ্জ ও জনদুর্ভোগ বৃদ্ধি করবে বলেও তারা মনে করেন।

সম্প্রতি সরকারের অতিগুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি ও সেবা সংস্থা গাড়ির জন্য ঢাকার সড়কে আলাদা ও সংরক্ষিত লেন রাখার প্রস্তাব করেছে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রণালয়ের সড়ক পরিবহন ও মহাসড়ক বিভাগে পাঠানো প্রস্তাবটির ওপর এখন মতামত তৈরি করছে ঢাকা যানবাহন সমন্বঢ

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৮৭৫ বার




Archives