আবার ও রেমিট্যান্সে রেকর্ড

প্রথম সময়: ডেস্ক নিউজ | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : ০৩. জুলাই. ২০১৯ | বুধবার

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

প্রথম সময় ডেস্ক:

 

২০১৮-১৯ অর্থবছরে প্রবাসী বাংলাদেশিরা ১ হাজার ৬৪২ কোটি ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছে। যা বাংলাদেশের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রানীতি বিভাগের হালনাগাদ প্রতিবেদন সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

‘ বাংলাদেশ ব্যাংকের প্রতিবেদন সূত্রে জানা যায়, গত জুন মাসে প্রবাসীরা ১৩৬ কোটি ৮০ লাখ ডলার দেশে পাঠিয়েছে। ফলে ২০১৮-১৯ অর্থবছরের ১২ মাসে প্রবাসীদের পাঠানো আয় দাঁড়ায় ১ হাজার ৬৪২ কোটি ডলার। যা আগের অর্থবছরের তুলনায় ১৪৪ কোটি ডলার বা ৯.৬১ শতাংশ বেশি।

এদিকে, ২০১৭-১৮ অর্থবছরে প্রবাসীরা ১ হাজার ৪৯৮ কোটি ডলার রেমিট্যান্স পাঠিয়েছিল।

তথ্য পর্যালোচনায় দেখা যায়, গত ৪ বছরের মধ্যে ২০১৪-১৫ অর্থবছরে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এসেছিল। ওই সময় ১ হাজার ৫৩১ কোটি ৬৯ লাখ মার্কিন ডলার রেমিট্যান্স আসে।

গত ২০১৬-১৭ অর্থবছরে প্রবাসীদের রেমিট্যান্স পাঠানোর পরিমাণ ছিল ১ হাজার ২৭৬ কোটি ৯৪ লাখ টাকা। ২০১৭-১৮ অর্থবছরে তা ১৭.৩ শতাংশ বেড়ে ১ হাজার ৪৯৮ কোটি মার্কিন ডলারে স্থিতি পেয়েছিল।

কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তথ্য বলছে, একক মাস হিসাবে গত অর্থবছরের মে মাসে সর্বোচ্চ রেমিট্যান্স এসেছে। ঈদ উৎসবের কারণে ওই মাসে প্রবাসীরা ১৭৫ কোটি ৫৭ লাখ ডলারের সমপরিমাণ অর্থ পরিমাণ অর্থ পাঠিয়েছে। যা একক মাস হিসেবে  সর্বোচ্চ।

আর্থিক খাতের সংশ্লিষ্টরা বলছেন, ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বরে দেশে রেমিট্যাস আহরণ হঠাৎ করে কমে যায়।  এসময় অবৈধ চ্যানেলে প্রবাসী আয় দেশে আনার প্রক্রিয়া বন্ধে উদ্যোগ নেয় বাংলাদেশ ব্যাংক। যার কারণে অবৈধ চ্যানেলে (হুন্ডি ও মোবাইল ব্যাংকিং) দেশে রেমিট্যান্স আসা কমেছে।

তারা বলেন, আগামী অর্থবছরে অর্থাৎ ২০১৯-২০ অর্থ বছরের বাজেটে রেমিট্যান্স পাঠানোর ওপর প্রবাসী বাংলাদেশিদের ২ শতাংশ হারে প্রণোদনা দেওয়ার ঘোষণা দেওয়া হয়েছে। অর্থাৎ প্রবাসীরা ১ লাখ টাকা পাঠালে ২ হাজার টাকা প্রণোদনা পাবেন। যা বৈধ প্রক্রিয়ায় রেমিট্যান্স পাঠাতে প্রবাসীদের উৎসাহিত করবে।

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৮৪ বার




Archives