বাডিত যাওবার কথা বলে চলে গেলেন না ফেরার দেশে

প্রথম সময়: ডেস্ক নিউজ | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : ১৪. মার্চ. ২০১৮ | বুধবার

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

 

বেনাপোল প্রতিনিধি

নেপালে উড়োজাহাজ দুর্ঘটনায় নিহত ইউএস-বাংলা এয়ারলাইন্সের সহকারী পাইলট কলারোয়ার ইলিশপুর গ্রামে পৃথুলা রশিদের বাড়িতে চলছে শোকের মাতম। তার মৃত্যুর খবর গ্রামের বাড়িতে পৌঁছানোর পর থেকে এলাকায় শোকের ছায়া নেমে আসে। বাবা কাজল হোসেন ও মা রাফেজা বেগমের একমাত্র সন্তান পৃথুলা রশিদ।

গ্রামের বাড়িতে এসে আম খাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করেছিল পৃথুলা। হাস্যোজ্জ্বল মেধাবী তরুণীকে হারিয়ে বাকরুদ্ধ স্বজনরা।

মার্চের শেষের দিকে ছুটিতে গ্রামের বাড়িতে আসার কথা ছিল তার। পৃথুলা আর আসবে না। এসেছে তার মৃত্যুর খবর। তার স্মৃতি আবেগতাড়িত করছে পরিবারের সদস্যদের।

ছুটিতে এসে ঘুরে বেড়াবে আত্মীয়স্বজনদের বাড়িতে। অপেক্ষায় ছিল এক সময়ের খেলার সাথী চাচাতো বোনেরা। এসএসসি পরীক্ষা দিয়ে বোনের জন্য অপেক্ষায় ছিল চাচাতো বোন উম্মে ইলমা ও উম্মে জান্নাতি।

পৃথুলার বাবা কাজল হোসেন বলেন, কোটি টাকা খরচ করে গড়ে তোলা জাতীয় সম্পদে রূপ নিয়েও শেষ রক্ষা হলো না। চলে গেল পরপারে। পৃথুলার জন্য সবার কাছে দোয়া চান তিনি।

নিহতের চাচা সহিদুল আলম বলেন, এ মাসেই ছুটি নিয়ে গ্রামের বাড়িতে আম খেতে আসার কথা ছিল তার। আর আসা হলো না। সবাইকে না বলে চলে গেল না

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৫৫৩ বার




Archives