ফেনী উপজেলা চেয়ারম্যান একরামের মতো হত্যা করতে চায় আমাকে হুমকি দেওয়া হচ্ছে অভিযোগে কাদের মির্জার জিডি

প্রথম সময়: নিউজ ডেস্ক | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : ১৬. ফেব্রুয়ারি. ২০২১ | মঙ্গলবার

ফেনী উপজেলা চেয়ারম্যান একরামের মতো হত্যা করতে চায়  আমাকে    হুমকি দেওয়া হচ্ছে  অভিযোগে কাদের মির্জার জিডি

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

সোহাগ সামী:

 

বাংলাদেশে জনপ্রিয় ব্যাক্তিদের  জীবন সবসময় হুমকির মুখে যে দেশে  নোবেল বিজয় ড. মুহাম্মদ ইউনুস  এমন কি লেখক সাংবাদিক  নিরাপদ নয় মমাম  হামলায়  হয়রানি  হতে হয়। এখন বাংলাদেশে সবচেয়ে জনপ্রিয় মেয়র  ওবায়দুল কাদেরের  আপন ছোট  ভাই নোয়াখালীর বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা ও তাঁর পরিবারের সদস্যদের প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে বলে সোমবার রাতে কোম্পানীগঞ্জ থানায় সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেছেন তিনি। ওই জিডিতে ষড়যন্ত্রমূলকভাবে হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে তাঁকে বা তাঁর কোনো কর্মীকে জড়ানোর ষড়যন্ত্র চলছে বলেও উল্লেখ করা হয়।

আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই কাদের মির্জা সম্প্রতি নোয়াখালীর রাজনীতি নিয়ে উত্তাপ ছড়ানো বক্তব্য দিচ্ছিলেন। গত মাসে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র নির্বাচনের আগে প্রচারণা সভাগুলোতে তাঁর ‘সত্যবচন’ সারা দেশের রাজনৈতিক মহলে আলোচিত হয়।

এরপর আজ সোমবার রাত সোয়া নয়টার দিকে আবদুল কাদের মির্জা নিজে বাদী হয়ে ওই জিডিটি করলেন। কাদের মির্জার জিডি প্রসঙ্গে কোম্পানীগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মীর জাহেদুল হক সোমবার রাত ১১টায় প্রথম আলোকে বলেন, মেয়রের সাধারণ ডায়েরি বিষয়টিকে তাঁরা গুরুত্বের সঙ্গে নিয়ে এরই মধ্যে তদন্ত শুরু করেছেন। এ বিষয়ে কারও কোনো সম্পৃক্ততা পাওয়া গেলে বা কাউকে শনাক্ত করা গেলে তাৎক্ষণিকভাবে প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সাধারণ ডায়েরিতে কাদের মির্জা উল্লেখ করেছেন, ‘কিছুদিন যাবৎ নোয়াখালী ও ফেনীর অপরাজনীতি ও দুর্নীতির বিরুদ্ধে সোশ্যাল মিডিয়াসহ গণমাধ্যমে কথা বলায় বিভিন্ন রাজনৈতিক অপশক্তি আমার ও আমার পরিবারের সদস্যদের প্রাণনাশের হুমকি দিচ্ছে। তারা আমিসহ আমার রাজনৈতিক কর্মীদের বিরুদ্ধে বিভিন্ন প্রকারের মিথ্যা মামলায় জড়ানোর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত রয়েছে।’

সাধারণ ডায়েরিতে বলা হয়েছে, আবদুল কাদের মির্জা গোপন সূত্রে সংবাদ পেয়েছেন, সন্ত্রাসী ও রাজনৈতিক অপশক্তি তাঁদের কোনো কর্মীকে খুন করে বসুরহাট বাসস্ট্যান্ড–সংলগ্ন এলাকায় ফেলে রেখে তাঁকে (কাদের মির্জাকে) এবং তাঁর দলীয় নেতা–কর্মীদের হত্যা মামলায় জড়ানোর ষড়যন্ত্র করছে




Archives