মিষ্টি নিয়ে বি এন পি জামায়াত নেতার বাসায় গেলেন কাদের মির্জা

প্রথম সময়: নিউজ ডেস্ক | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : ১৮. জানুয়ারি. ২০২১ | সোমবার

মিষ্টি নিয়ে বি এন পি  জামায়াত নেতার বাসায়  গেলেন  কাদের মির্জা

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

প্রথম সময় ডেস্ক:

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার বসুরহাট পৌরসভার নির্বাচনে পরাজিত বিএনপি ও জামায়াতের (স্বতন্ত্র) দুই প্রার্থীর বাড়িতে মিষ্টি নিয়ে গেলেন ‘সত্যবচনে’ আলোচিত নবনির্বাচিত মেয়র আবদুল কাদের মির্জা। আজ রোববার বিকেলে আবদুল কাদের মির্জা উপজেলা আওয়ামী লীগের নেতাদের সঙ্গে নিয়ে তাঁদের বাড়িতে যান।

কাদের মির্জা সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ছোট ভাই। এ নিয়ে তিনি টানা তৃতীয়বারের মতো মেয়র নির্বাচিত হলেন।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, বেলা তিনটার দিকে আবদুল কাদের মির্জা বিএনপির প্রার্থী কামাল উদ্দিন চৌধুরীর বাসায় যান। সেখানে তিনি ১০-১৫ মিনিট সময় অবস্থান করেন। এ সময় আবদুল কাদের মির্জা সুষ্ঠু নির্বাচনে সহযোগিতা করার জন্য বিএনপির প্রার্থীকে ধন্যবাদ জানান। তিনি বিএনপির প্রার্থীর কাছে আগামী দিনে পৌরসভার উন্নয়ন কর্মকাণ্ডে তাঁর পরামর্শ ও সহযোগিতা কামনা করেন।

সাক্ষাৎকালে আবদুল কাদের মির্জা কোম্পানীগঞ্জে দলমত-নির্বিশেষে রাজনৈতিক সৌহার্দ্যপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখতে এবং অবৈধ অস্ত্রধারীদের বিরুদ্ধে পদক্ষেপ গ্রহণে বিএনপির প্রার্থীর সহযোগিতা চেয়েছেন। এ সময় বিএনপির প্রার্থী ও উপজেলা বিএনপির সভাপতি কামাল উদ্দিন চৌধুরী নবনির্বাচিত মেয়রকে তাঁর বাসায় আসার জন্য ধন্যবাদ জানান এবং ভবিষ্যতে পৌরসভার উন্নয়নে সহযোগিতার আশ্বাস দেন। পর বেলা সাড়ে তিনটার দিকে আবদুল কাদের মির্জা আরেক প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী জামায়াতের (স্বতন্ত্র) মুহাম্মদ মোশারফ হোসেনের বাড়িতে যান। সেখানেও তিনি ১০-১৫ মিনিট অবস্থান করেন। এ সময় তিনি সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানে সহযোগিতা করার জন্য জামায়াত-সমর্থিত প্রার্থীকে ধন্যবাদ জানান। পাশাপাশি তিনি রাজনৈতিক মতভেদ ভুলে পৌরসভার উন্নয়নে সহযোগিতা কামনা করেন। বিদায়কালে দুই প্রার্থী কোলাকুলি করেন।

নবনির্বাচিত মেয়র রাজনৈতিক সৌহার্দ্যের অংশ হিসেবে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে এসেছেন। এটা অবশ্যই একটি ভালো দিক।

মুহাম্মদ মোশারফ হোসেন, জামায়াত সমর্থিত (স্বতন্ত্র) প্রার্থী

বিএনপির প্রার্থী কামাল উদ্দিন চৌধুরী প্রথম আলোকে বলেন, নবনির্বাচিত মেয়র পৌরসভার উন্নয়নে এবং রাজনৈতিক সহাবস্থান বজায় রাখতে সহযোগিতা চেয়েছেন। তা ছাড়া অবৈধ অস্ত্রধারীদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণে শিগগিরই একটি কমিটি করার কথা বলেছেন। তিনি তাঁকে সহায়তা করার আশ্বাস দিয়েছেন।

জামায়াত সমর্থিত (স্বতন্ত্র) প্রার্থী মুহাম্মদ মোশারফ হোসেন বলেন, নবনির্বাচিত মেয়র রাজনৈতিক সৌহার্দ্যের অংশ হিসেবে সৌজন্য সাক্ষাৎ করতে এসেছেন। এটা অবশ্যই একটি ভালো দিক। তিনি পৌরসভার উন্নয়নে সহযোগিতা চেয়েছেন। তিনি সহযোগিতার আশ্বাস দিয়েছেন।

মেয়রের সৌজন্য সাক্ষাতের সময় উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খিজির হায়াত খান, বসুরহাট পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি জামাল উদ্দিন, উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি নিজাম উদ্দিন, উপজেলা জামায়াতের আমির বেলায়েত হোসেন, জামায়াত নেতা কামাল উদ্দিন প্রমুখ উপস্থিত




Archives