ওসি কে গ্রেফতার করছে পুলিশ।

প্রথম সময়: ডেস্ক নিউজ | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : ১৬. জুন. ২০১৯ | রবিবার

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

প্রথম সময় প্রতিবেদক:

 

 

ওসি মোয়াজ্জেমকে ধরতে গোয়েন্দা পুলিশের একাধিক দল কুমিল্লায় গত কয়েকদিন ধরে সম্ভাব্য স্থানগুলোতে অভিযান চালিয়ে আসছিল। পুলিশের একাধিক নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, রোববার হাইকোর্ট থেকে জামিন নেয়ার জন্য কুমিল্লা থেকে রোববার ঢাকায় আসেন মোয়াজ্জেম।

রোববার দুপুরে মোয়াজ্জেম নিজের আইনজীবীর চেম্বারে যান। এদিকে তাকে ধরতে গোয়েন্দা পুলিশের সদস্যরাও হাইকোর্টের বিভিন্ন স্থানে অবস্থান নেন।

তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে গ্রেফতার আতঙ্কে ওসি মোয়াজ্জেম বাইরে বের হয়ে আসলে হাইকোর্টের সামনে থেকে শাহবাগ থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে।

পুলিশ সদর দফতরের এআইজি (মিডিয়া) সোহেল রানা প্রথম সময় ডটকমকে জানান, দুপুরে ওসি মোয়াজ্জেমকে হাইকোর্ট এলাকা থেকে গ্রেফতার করেছে শাহবাগ থানা পুলিশ।

শাহবাগ থানার অফিসার ইনচার্জ আবুল হাসান পরিবর্তন ডটকমকে বলেন, ওসি মোয়াজ্জেমকে গ্রেফতার করে থানায় আনা হয়েছে।

প্রসঙ্গত, নুসরাত যখন চিকিৎসাধীন ছিলেন তখনও আসামিদের গ্রেফতার না করে মামলা দায়ের বিলম্বিত করার চেষ্টার অভিযোগ রয়েছে ওসি মোয়াজ্জেমের বিরুদ্ধে। ৮ এপ্রিল নুসরাতের মৃত্যুর পর প্রধানমন্ত্রী এ ঘটনায় কোনো আসামি ছাড় পাবে না ঘোষণা দিলে ওসি মোয়াজ্জেমের ভিডিও ছড়ানোর অভিযোগ সামনে চলে আসে।

এরপর গত ১৫ এপ্রিল সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার সায়েদুল হক সুমন বাদী হয়ে তার বিরুদ্ধে ডিজিটাল সিকিউরিটি আইনে মামলা দায়ের করেন।

ওসি মোয়াজ্জেম হোসেনের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি পুলিশ ব্যুরো অফ ইনভেস্টিগেশন (পিবিআই) কে তদন্তের নির্দেশ দেন আদালত। এক পর্যায়ে ফেনীর সোনাগাজী থানা থেকে তাকে প্রত্যাহার করে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় এবং রংপুর রেঞ্জে তাকে সংযুক্ত করা হয়। রংপুর রেঞ্জে যোগ দিলেও ঈদের পর থেকে তাকে আর খুঁজে পাচ্ছিল না পুলিশ।

গত ২৬ মে ঢাকার সাইবার ট্রাইবুন্যালের বিচারক মোহাম্মদ আসসামস জগলুল হোসেন গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন। ১৭ জুন পরোয়ানা তামিল সংক্রান্ত প্রতিবেদন দাখিলের জন্য তদন্ত কর্মকর্তাকে নির্দেশ দেওয়া হয়।

 

আরও পড়ুন…
ওসি মোয়াজ্জেম ‘উধাও’, কী বলছে পরিবার?

এই সংবাদটি পড়া হয়েছে ৫১ বার




Archives