বাংলাদেশে বুধবার থেকে মিনিকেটের বস্তা ২৫৭৫, আটাশ চাল ২২৫০

প্রথম সময়: ডেস্ক নিউজ | সংবাদ টি প্রকাশিত হয়েছে : ৩০. সেপ্টেম্বর. ২০২০ | বুধবার

বাংলাদেশে  বুধবার থেকে মিনিকেটের বস্তা ২৫৭৫, আটাশ চাল ২২৫০

এই প্রতিবেদন শেয়ার করুন

স্পেশাল করেসপন্ডেন্ট

ঢাকা: অস্থিরতা ঠেকাতে বাজারে চালের দাম বেঁধে দিয়েছে সরকার। সরকার নির্ধারিত দাম অনুযায়ী ভালো মানের মিনিকেট চালের ৫০ কেজির বস্তা ২৫৭৫ টাকার বেশি দামে ব্যবসায়ীরা বিক্রি করতে পারবেন না। অন্যদিকে ব্রি ২৮-সহ মাঝারি মানের চালের ৫০ কেজির বস্তার দাম নির্ধারণ করা হয়েছে ২১৫০ থেকে ২২৫০ টাকা।
মঙ্গলবার (২৯ সেপ্টেম্বর) খাদ্য ভবনে চালকল মালিকদের সঙ্গে অনুষ্ঠিত এক বৈঠক থেকে এ সিদ্ধান্ত আসে। খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার সাংবাদিকদের জানান, বুধবার (৩০ সেপ্টেম্বর) থেকে চালের এই দাম কার্যকর হবে। বৈঠকের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী নির্ধারিত মূল্য বাস্তবায়ন না হলে ১০ দিনের মধ্যে সরকার সরু চাল আমদানির অনুমতি দেবে।

গত কিছুদিন থেকেই চালের বাজারে দেখা দিচ্ছে অস্থিরতা। পাইকারি ও খুচরা বাজারে অব্যাহতভাবে চালের দাম বাড়ছে। এ অবস্থার পরিপ্রেক্ষিতে চালকল মালিকদের নিয়ে প্রায় তিন ঘণ্টা বৈঠক করেন খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদারসহ মন্ত্রণালয়ের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তারা।
খাদ্য সচিব ড. মোছাম্মৎ নাজমানারা খানুমের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে গত এক সপ্তাহে চালের যে দাম বাড়ানো হয়েছে, তা কমিয়ে আনতে বলা হয়েছে চালকল মালিকদের।

বৈঠকে চাল ব্যবসায়ীদের উদ্দেশে খাদ্যমন্ত্রী বলেন, আগামী একমাস কোনোভাবেই চালের দাম বাড়ানো যাবে না। অর্থাৎ গোটা অক্টোবর মাসে সরকার নির্ধারিত এই দরেই চাল বিক্রি করতে হবে। ব্যবসায়ীরা সেটা না মানলে একদিকে ভোক্তা অধিকার আইন অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে, অন্যদিকে সরকার চাল আমদানির অনুমতি দিয়ে দেবে।

চালের পাইকারি ব্যবসায়ীরা বলছেন, গত ১০ থেকে ১৫ দিনের মধ্যে প্রায় সব ধরনের চালের দাম ৫০ কেজির বস্তায় ১০০ থেকে ২০০ টাকা পর্যন্ত বেড়েছে। দেশের প্রায় অর্ধেক জেলায় বন্যা পরিস্থিতির অজুহাতে তারা দাম বাড়িয়ে চলছেন




Archives